Banglamail-img

পাল্টাপাল্টি ধর্মঘটে পণ্য পরিবহনে অচলাবস্থা

শুধু যে বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে তা নয়, পণ্য খালাস হচ্ছে না ঘাটে থাকা লাইটারেজ জাহাজ থেকেও। সূত্র জানায়, দুই হাজার ৫০০ টন গম নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙর থেকে আসাম বেঙ্গল ঘাটে আসে ‘পেয়ারা-৬’ নামের একটি লাইটারেজ জাহাজ। কিন্তু দুই সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও মালিক-শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটে অর্ধেকেরও বেশি গম এখনো খালাস করা যায়নি। এই লাইটারেজটির মতো সারাদেশের নৌঘাটগুলোতে প্রায় সাত লাখ ৭৯ হাজার টন পণ্য নিয়ে আটকে আছে ৬৩১টি জাহাজ। যেখানে বোঝাই রয়েছে ভোগ্যপণ্য, খাদ্যশস্য ছাড়াও জ্বালানি তেলের মতো বিভিন্ন জরুরি পণ্যও। পাশাপাশি সারাদেশে অলস পড়ে আছে প্রায় দুই হাজার ১০০টি লাইটারেজ জাহাজ। আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা বলছেন, এ অবস্থার নিরসন না হলে অচিরেই অস্থিতিশীল হয়ে উঠবে দেশের ভোগ্যপণ্যের বাজার। পাশাপাশি শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোতে দেখা দেবে কাঁচামাল সংকট। এ ছাড়া, জ্বালানি সরবরাহ সীমিত হয়ে পড়ায় এর প্রভাব পড়ছে দেশের বিদ্যুৎ উৎপাদনেও।
Banglamail-img

জয়ের অর্থপাচারের কথা জনগণ জেনে গেছে

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, শফিক রেহমানকে আটক করার মাধ্যম জনগণ প্রধানমন্ত্রীপুত্র জয়ের অর্থপাচারের কথা জেনে গেছে। তার দাবি, আলোচিত ৩০০ মিলিয়ন ডলারের বিষয়টি তদন্ত করা হোক।  সোমবার (২ মে) বেলা সোয়া ১১টার দিকে শ্রমিক দলের প্রতিষ্ঠাতাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর শেরে বাংলা নগর বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা ও দোয়া মোনাজাত শেষে তিনি এসব কথা বলেন।  তিনি বলেন, ৩০০ মিলিয়ন ডলারের জন্য সরকারের মামলা করে তদন্ত করা উচিত। নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘সরকার সাংবাদিক শফিক রেহমানকে গ্রেপ্তার করায় কেঁচো খুঁড়তে সাপ বেরিয়ে আসছে। প্রধানমন্ত্রীর পুত্র সজিব ওয়াজেদ জয়ের অনেক কথা জনগণ এতদিন জানত না। এখন জনগণ জয়ের অর্থ পাচারের কথা জেনে গেছে।’
Banglamail-img

খালেদার বিরুদ্ধে হত্যা মামলার প্রতিবেদন নেই ১৪ মাসেও

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে ৪২ জনকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগের মামলার চৌদ্দ মাসেও তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেনি গুলশান থানার ওসি। সোমবার এ মামলাটিতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু কোনো প্রতিবেদন না আসায় ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মাজহারুল ইসলাম পুনরায় ১১ জুলাই দিন ধার্য করেছেন প্রতিবেদনের জন্যে। মামলার অপর ৩ আসামি হলেন— চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. এমাজউদ্দিন আহমেদ, ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী ও স্থায়ী কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম মিয়া।  গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এবি সিদ্দিকী মামলাটি দায়ের করলে আদালত গুলশান থানার অফিসার ইনচার্জকে (ওসি) অভিযোগ তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। দণ্ডবিধি ৩০২, ১০৯ ও ১২০ (বি) ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়।
Banglamail-img

সাত খুনের দুই মামলায় ৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ

নারায়ণগঞ্জ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ওয়াজেদ আলী খোকন জানান, সোমবার দুইজন বাদীর সাক্ষ্য নেয়া হয়েছে। আগামী ৯ মে অন্যদের সাক্ষ্য নেয়া হবে। আদালত সূত্রে জানা গেছে, সাত খুনের ঘটনায় দুটি মামলা হয়। একটি মামলার বাদী বিজয় কুমার পাল হলেন-নিহত অ্যাডভোকেট চন্দন সরকারের মেয়ে জামাতা ও অপর বাদী সেলিনা ইসলাম বিউটি হলেন নিহত নজরুল ইসলামের স্ত্রী।

ইনবক্সে যৌনবার্তা, পর্নোও পাঠাতেন মাহফুজ

Banglamail-img
রাজধানীর পান্থপথে ফ্ল্যাট ছিল শিক্ষার্থীদের যৌন নিপীড়নের ঠিকানা। শ্বশুরের কাছ থেকে উপহার পাওয়া এ ফ্ল্যাটে ছলে-বলে-কৌশলে শিক্ষার্থীদের ঘৃণিত এ কাজে বাধ্য করে আসছিলেন আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মাহফুজুর রশিদ ফেরদৌস। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর এবং ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক বিভাগের সহযোগী এ অধ্যাপকের বিরুদ্ধে বেশ কছর ধরে মৌখিক ও লিখিত অভিযোগ করে আসছিলেন নিপীড়নের শিকার শিক্ষার্থীরা। শিক্ষকের দাপটে সব মিলিয়ে যাচ্ছিল। নিপীড়নের শিকার ছাত্রীদের বেদনা অব্যক্তই থেকে যায়। তবে শেষ রক্ষা হল না দাপুটে শিক্ষক মাহফুজুর রশিদ ফেরদৌসের। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, স্ত্রী-সন্তানসহ পরিবার নিয়ে হলি ফ্যামিল রেড ক্রিসেন্ট এলাকার একটি ফ্ল্যাটে থাকেন যৌন হয়রানির দায়ে অভিযুক্ত মাহফুজ। আরেকটি ফ্ল্যাট রাজধানীর পান্থপথ আবাসিক এলাকায়। প্যরাডাইস সুইটসের পাশে শ্বশুরের কাছ থেকে উপহার পাওয়া ওই ফ্ল্যাটে শিক্ষার্থীদের ব্ল্যাকমেইল করে এনে জোরপূর্বক যৌন হয়রানি করে আসছিলেন শিক্ষার্থীদের।

জয়কে কোপালেও হাসিনা বলবেন ‘নাস্তিক’ ছিল

Banglamail-img
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনকে ‘মুক্ত’ না করে ‘বদ্ধ’ করার উপদেশ দিচ্ছেন মন্তব্য করে তসলিমা বলেন, “জয়কেও যদি এখন কুপিয়ে মেরে ফেলা হয়, হাসিনা বলবেন, ‘জয়ও ভেতরে ভেতরে হয়তো নাস্তিক ছিল। আমরা জানতাম না। নাস্তিক না হলে বা মুক্তমনা না হলে সন্ত্রাসীরা ওকে মারবে কেন?” সোমবার (২ মে) তসলিমা নাসরিন তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে এ শ্লেষ ছুড়ে দেন। বাংলামেইলের পাঠকের জন্য তসলিমা নাসরিনের পুরো স্ট্যাটাসটি তুলে দেয়া হল— ‘পুরো বিশ্ব জানে বাংলাদেশে নাস্তিকদের কুপিয়ে মারছে ইসলামী সন্ত্রাসীরা। এখন কোনো আস্তিককে মেরে ফেলা হলেও বলা হবে, ও ব্যাটা নির্ঘাত নাস্তিক ছিল। হাসিনার ছেলে জয়কেও যদি এখন কুপিয়ে মেরে ফেলা হয়, হাসিনা বলবেন, ‘জয়ও ভেতরে ভেতরে হয়তো নাস্তিক ছিল। আমরা জানতাম না। নাস্তিক না হলে বা মুক্তমনা না হলে সন্ত্রাসীরা ওকে মারবে কেন’। সন্ত্রাসীদের বিচারের প্রতি আস্থা দেশের প্রধানমন্ত্রীরও আছে। আস্থা আছে বলেই প্রধানমন্ত্রী খুনীদের শাস্তি দেওয়ার পক্ষে নন। তিনি বরং মুক্তমনাদের উপদেশ দিচ্ছেন মনকে মুক্ত না করে বদ্ধ করতে। জটিল লেখালেখি বন্ধ করতে।

ইউরোপের বাজারে পোশাক যাবে বাংলাদেশি ব্র্যান্ডে

Banglamail-img
বাংলাদেশি পোশাক ইউরোপসহ বহির্বিশ্বে বাজারজাতকরণ ও বিপণন উদ্যোগ নিয়ে প্রথমবারের মতো ‘বাংলাদেশি’ নামে একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে। যার লক্ষ্য হবে বাংলাদেশি ব্র্যান্ডে দেশের তৈরি পোশাক ইউরোপের বাজারে বাজারজাত করা। তাই ফ্রান্স সফররত বিজিএমইএ‘র সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলামের সাথে এক মতবিনিময় সভা করেছেন ফ্রান্সের ব্যবসায়ী নেতারা। শনিবার প্যারিসের নিউ দিল্লি রেস্টুরেন্টে বাংলাদেশ বিজনেস কন্সাল্টিংয়ের (বিবিসি) আয়োজনে এ সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইকোনোমিক চেম্বারের সভাপতি ও বিবিসির ডিরেক্টর জেনারেল কাজী এনায়েত উল্লাহ, বিশিষ্ট চিংড়ি রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান মর্ডান সি ফিশের চেয়ারম্যান কাজী রেজাউল হক।

হারিয়ে যাচ্ছে প্রকৃতির বন্ধু ব্যাঙ

Banglamail-img
‘১৯৮৮ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত সোনাব্যাঙ রপ্তানি করে বাংলাদেশ প্রায় দুই কোটি ৬০ লাখ মার্কিন ডলার অর্জন করেছে। কিন্তু এ সময়গুলোতে ফসলে বিভিন্ন পোকার আক্রমণে আমরা হারিয়েছি কোটি কোটি ডলার। তাই পরিবেশ রক্ষায় আজ আমরা ব্যাঙ সংরক্ষণের দাবি তুলেছি। এ জন্যই ব্যাঙ রক্ষায় জনসচেতনতা তৈরিতে আমাদের এই প্রচেষ্টা।’

লোমশ মানবী : পাশে দাঁড়ালো চিকিৎসকরা

Banglamail-img
দুরারোগে আক্রান্ত কিশোরী বিথির চিকিৎসার জন্য এলাকার (টাঙ্গাইল নাগরপুরের জয়ভোগ) মানুষের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা ধার নিয়েই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে আসেন বাবা আব্দুর রাজ্জাক। কিন্তু কয়েকদিনেই শেষ হয়ে যায় সেই টাকা। তাই দুশ্চিন্তায় পড়েন মেয়ের চিকিৎসা নিয়ে। এসময় তার পাশে এসে দাঁড়ান গণমাধ্যম। প্রথমে চিকিৎসকরা তাকে অবহেলা করলেও গণমাধ্যমকর্মীদের আনাগোনার কারণে এখন ডাক্তার ও নার্সরা বিথিকে বেশ যত্নআত্মি করে। এমনকি বিথির চিকিৎসা এগিয়ে নিতে সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকরা।

রওশন আমার পাশে, আমার হৃদয়ে আজ আনন্দ

Banglamail-img
জাতীয় পার্টিতে দুর্যোগের ঘনঘটা ছিল, আজ তা কেটে গেছে। আমার হৃদয় আজ আনন্দে ভরপুর। কারণ রওশন আমার পাশে।’ এভাবেই নিজের আবেগকে সবার সামনে তুলে ধরলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। শনিবার বিকেলে রাজধানীর কাকরাইলস্থ জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয় প্রাঙ্গণে মহান মে দিবস এ উপলক্ষে শ্রমিক সমাবেশ স্ত্রী রওশনকে কাছে পেয়ে এরশাদ তার এ আবেগের কথা জানান। জাতীয় শ্রমিক পার্টি এ সমাবেশের আয়োজন করে। এ সময় রওশন স্বামী এরশাদের পাশের চেয়ারেই বসা ছিলেন।
Banglamail-img

ডিপিএল-এ মোহামেডানের ম্যাচ স্থগিত

ঢাকা: ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের মধ্যকার ম্যাচটি স্থগিত করা হয়েছে।  সোমবার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও মাঠে ভেজা থাকার কারণে সেটা সম্ভব হয়নি।
Banglamail-img

অপু-দূর্গার হাত ধরে যার শুরু...

সিনেমা বানাতে আবেগ আর আন্তরিকতার অভাব ছিলো না সত্যজিৎ রায়ের। তবে তাঁর অভাব ছিলো অর্থের। সিনেমা বানাতে যে পয়সা লাগে, তার খুব ভালো জানা ছিলো না। ফলে একাধিকবার সত্যজিৎকে বন্ধ করতে হয় ‘পথের পাঁচালি’র শ্যুটিং।
নির্বাচন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নির্বাচন কমিশন নামেমাত্র ইউপি নির্বাচনের আয়োজন করেছে। মাঠ কর্মকর্তাদের সঙ্গে সমন্বয় না করে পুরো দায়িত্ব তাদের হাতে দিয়েছে। এতে করে ইউপিতে ব্যাপক অনিয়ম কারচুপির ঘটনা ঘটছে। এ কারণে ফলাফলে এমন অস্বাভাবিক চিত্র দেখা গেছে।   এই ধাপের ধাপের চূড়ান্ত ফলাফলে দেখা যায়, ৬১৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা মোট ৩৯৫টি ইউনিয়নে জয় লাভ করেছেন। এর মধ্যে ৩৬৬টিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ও ২৯টিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন তারা। বিএনপি জিতেছে ৬০টি ইউপিতে। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় পেয়েছেন ১৩৯টি ইউনিয়নে। জাতীয় পার্টি ১৪টি, জাসদ ১টি ও জমিয়ত উলামায়ে ইসলাম ১টি ইউনিয়নে জয় পেয়েছেন।
দেশের বাজারে রোববার রাত ১২টার পরপরই জ্বালানি তেলের দাম প্রতিলিটারে ১০ টাকা কমানোর সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করতে জনস্বার্থে জ্বালানি তেলের দাম কমানো হয়। তবে এর প্রকৃত সুবিধা ভোক্তারা পাবে কি না তা নিয়ে নতুন করে দেখা দিয়েছে সংশয়। কারণ বাসমালিকরা উল্টো হাস্যকর প্রশ্ন রাখছেন, জ্বালানি তেলের দাম কমেছে নাকি?
অতিরিক্ত গরমের ফলে জনস্বাস্থ্য, প্রকৃতি ও পরিবেশের ওপর স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি দু’ভাবেই প্রভাব পড়ে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঋতুচক্রে কিংবা আবহাওয়ার পরিবর্তন হচ্ছে। চলতি বছর এল নিনোর প্রভাবে ঋতুচক্র আরও কম (শীতকালে শীত) অনূভূত হবে। বাতাসে আর্দ্রতার মাত্রা বেড়ে গরম চরম আকার ধারণ করতে পারে। গরমের এই তীব্রতা একটা অশনী সংকেত। তাই সবাইকে সচেতন হওয়ার পাশাপাশি সরকারিভাবে পরিকল্পনা ও উদ্যোগ গ্রহণের তাগিদ দিচ্ছেন তারা। 
মানসম্মানের ভয়ে অঢেল ধন-সম্পদ ফেলে ভারতে এসেও শেষ সম্মানটুকু ধরে রাখতে পারলাম না। দু’বেলা দু’মুটো ভাতের জন্য জন দিয়ে (কামলা খেটে) চলতে হচ্ছে। এরচেয়ে বড় অসম্মান আর কী হতে পারে? অভাবের কষাঘাতে আমাদের সংসার থেকে সুখ দূরে সরে গেছে। এ কারণে বাংলাদেশ থেকে বেড়াতে আসা অনেক প্রিয়জন আমাদের সঙ্গে দেখা করেন না। ভিন্ন পথ দিয়ে চলে যান। এর চেয়ে আমাদের মরে যাওয়া অনেক ভালো।