Banglamail-img

কারা আইএস কোথায় আইএস, হন্যে হয়ে খুঁজছি

ব্লগার, লেখক, প্রকাশক, অধিকারকর্মীসহ বিভিন্ন নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএসের দায় স্বীকারের খবর পাওয়া যায়।  বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চপর্যায়ের নেতৃবৃন্দও বারবার বাংলাদেশে সংগঠনটি আছে বলে বক্তব্য-বিবৃতি দিচ্ছেন। যদিও বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বারবারই বলা হচ্ছে, দেশে আইএসের অস্তিত্ব নেই। সাইট ইনটেলিজেন্স পত্রিকা আইএসের বরাত দিয়ে যেসব দায় স্বীকারের তথ্য দিচ্ছে তার কোনো ভিত্তি খুঁজে পাওয়া যায়নি। এ প্রেক্ষিতে শুক্রবার (৫ মে) সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ‘দেশে আইএস আছে কি না, তা খুঁজে বের করতে সরকার ব্যাপক চেষ্টা চালাচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘কারা আইএস, কোথায় আইএস তা আমরা হন্যে হয়ে খুঁজছি।’ 
Banglamail-img

সাংবাদিক তোয়াব খান সিসিইউতে 

প্রবীণ সাংবাদিক তোয়াব খানের কর্মস্থল জনকণ্ঠ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবৎ তিনি হৃদরোগে ভুগছিলেন। একটা পর্যায়ে হৃদরোগ থেকে তার ফুসফুসেও সমস্যা হয়েছিল। শুক্রবার ভোররাতে তাকে ল্যাবএইডের সিসিইউতে ভর্তি করা হয়। তোয়াব খান পেশাজীবনে পাড়ি দিয়েছেন সাড়ে পাঁচ দশক। সাংবাদিকতা পেশার উন্নয়নে অনন্য অবদানের জন্য তাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে ‘আতাউস সামাদ স্মারক ট্রাস্ট আজীবন সম্মাননা’ দেয়া হয়েছে। 
Banglamail-img

রাজপথে গ্রেপ্তার সোনিয়া-রাহুল-মনমোহন

সংসদ ভবন ঘেরাওয়ের সময় আজ শুক্রবার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন কংগ্রেসের সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী, সহ-সভাপতি রাহুল গান্ধী ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ। পরে অবশ্য কিছুক্ষণের মধ্যেই তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। এদিকে গ্রেপ্তারির প্রতিবাদে পার্লামেন্ট স্ট্রিট পুলিশ স্টেশনের বাইরে বিক্ষোভ দেখান কংগ্রেস কর্মীরা। পুলিশের ব্যারিকেড টপকানোরও চেষ্টা করেন তারা। 
Banglamail-img

কালো বিড়াল থেকে সুরঞ্জিত এখন ইসলামী চিন্তাবিদ

রেলমন্ত্রী থাকা অবস্থায় সুরঞ্জিত কালো বিড়াল উপাধি নিয়ে মন্ত্রীত্ব থেকে বের হতে বাধ্য হয়েছেন। আর এখন তিনি খাজা, দরবেশ, সুফি এবং বিশিষ্ট ইসলামি চিন্তাবিদদের স্টাইলে কথা বলেন। কালো বিড়াল থেকে তিনি এখন বিশিষ্ট ইসলামি চিন্তাবিদ হয়েছেন।’   এসময় তিনি প্রধামন্ত্রীকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘পিন্টুকে হত্যা, ইলিয়াস আলীকে গুম করার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী আপনি মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছেন। এ জন্য আপনাদের একদিন বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। আমি না থাকলেও দেশের জনগণ আপনাদের বিচার দেখবে।’ দেশ রক্ষা আর আইন রক্ষা দুটো ভিন্ন বিষয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।     

সপ্তাহের ৭ দিনের ইবাদতপূর্ণ নফল নামাজ

Banglamail-img
হজরত আবু হুরায়রা (রা.) ও হজরত মুআজ ইবনে জাবাল (রা.) থেকে বর্ণিত আছে, শনিবার রাতে চার রাকাত নফল নামাজ রয়েছে। হজরত আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, যে ব্যক্তি শনিবার দিন চার রাকাত নফল নামাজ আদায় করবে, আল্লাহ তাআলা তার জন্য ৭০ হাজার ফেরেশতা পাঠাবেন, যারা কিয়ামত পর্যন্ত তার জন্য দোয়া করতে থাকবে এবং কিরামান কাতেবিন তার জন্য শহীদের সওয়াব লিখতে থাকবে; সমুদ্রের ফেনা ও আকাশের তারকা সমান তার গোনাহ থাকলেও তা মাফ করে দেওয়া হবে।

লাগামহীন রসুন, বাড়ছে পিঁয়াজের দাম

Banglamail-img
শুক্রবার রাজধানীর কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি কেজি আমদানি করা রসুন বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা থেকে ২২০ টাকায়। যা গত সপ্তাহে বিক্রি হয়েছে ১৯০ টাকা থেকে ২০০ টাকায়। আমদানি করা রসুনের পাশাপাশি দেশীয় রসুনের দামও সমান তালেই বেড়েছে। গত সপ্তাহে প্রতি কেজি দেশি রসুন বিক্রি হয়েছে ৮০ টাকা থেকে ১০০ টাকায়, তা শুক্রবার বিক্রি হচ্ছে ৯০ টাকা থেকে ১২০ টাকায়। অর্থাৎ এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতিকেজি রসুনে বেড়েছে ১০ টাকা থেকে ৩০ টাকা। সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) হিসেব মতে, গত এক মাসের ব্যবধানে দেশি রসুনের দাম বেড়েছে ৫০ শতাংশ এবং আমদানি করা রসুনের দাম বেড়েছে ১৫ দশমিক ৭ শতাংশ। সংস্থার হিসেবে গত এক মাস আগে দেশি রসুন ৬০ টাকা থেকে ৮০ টাকায় এবং আমদানি করা রসুন ১৭৫ টাকা থেকে ১৯০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। শুক্রবার দেশি রসুন ৯০ টাকা থেকে ১২০ টাকা এবং আমদানি করা রসুন ২০০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।     এদিকে, খুচরা বাজারে প্রতিকেজি পিঁয়াজ (দেশি) ৪৫ থেকে ৪৮ টাকায় এবং আমদানি করা পিঁয়াজ ২৫ টাকা থেকে ৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দেশি পিঁয়াজ গত সপ্তাহে বিক্রি হয়ে

ট্রাম্পের ‘আমেরিকা প্রথম’ নীতি সমর্থন ৫৭ শতাংশ মার্কিনির

Banglamail-img
পিউ রিচার্স সেন্টারের এ জরিপের ফলাফলের সঙ্গে একমত নন মার্কিন নাগরিকদের ৩৭ শতাংশ। তারা এ জরিপকে দলীয় দৃষ্টিভঙ্গি হিসেবে অভিহিত করে বলেছেন, হস্তক্ষেপ নয়, যুক্তরাষ্ট্রের উচিত সমস্যা সমাধানে অন্যদের সহায়তা দেয়া। উত্তরদাতাদের ৪১ শতাংশ মনে করে, সমস্যা সমাধানের নামে বিশ্বজুড়ে যুক্তরাষ্ট্র যা করছে তা বাড়াবাড়ি।

নিউইয়র্কের রাস্তায়-ডাস্টবিনে বাংলাদেশিদের বায়োডাটা!

Banglamail-img
প্রবাসীদের ছবিসহ জীবনবৃত্তান্তের কপি কুইন্সের রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে বিস্ময়ে হতবাক হয়েছেন অনেকে। রাস্তাটি নর্দার্ন বুলেভার্ডে অবস্থিত বাংলাদেশ কন্স্যুলেটের নিচ দিয়ে। মেশিনে রিডেবল পাসপোর্টের (এমআরপি) জন্যে করা আবেদনের কপি অনেকে কুড়িয়ে নিচ্ছেন। কেউ কেউ ওই কপিতে দেয়া ফোন নম্বরে যোগাযোগ করে তা সংশ্লিষ্টদের দিয়ে দিচ্ছেন।  এপ্রিল মাসের শেষার্ধে বেশিরভাগ আবেদনের এমআরপি বিতরণের সিল রয়েছে। অর্থাৎ এগুলো কন্স্যুলেটের সংরক্ষণ করার কথা। অপ্রয়োজনীয় হলে যথানিয়মে বিনষ্ট করার কথা। কারণ, এসব আবেদনে প্রবাসীদের নাম-ঠিকানা-জন্ম তারিখসহ ছবি রয়েছে। এগুলো ব্যবহার করে অনেক অপকর্মই সংগঠিত করতে পারবে দুর্বৃত্তরা। কিন্তু কন্স্যুলেট তা করেনি। এসব আবেদনে সোস্যাল সিকিউরিটি নম্বর না থাকলেও কারো কারো আবেদনে স্টেট আইডি অথবা ড্রাইভিং লাইসেন্সের কপি রয়েছে। এসব তথ্য দিয়ে সোস্যাল সিকিউরিটি নম্বরও সংগ্রহ করা যায়। ভুয়া গ্রিনকার্ড তৈরি কিংবা ড্রাইভিং লাইসেন্স অথবা ক্রেডিট কার্ড বানিয়ে সংশ্লিষ্টদের সর্বনাশ করার ঘটনাও এর আগে অনেকবার ঘটেছে।

পৃথিবীর ৯৯.৯৯% প্রজাতি এখনো অনাবিষ্কৃত!

Banglamail-img
ন্যাশনাল একাডেমি অব সায়েন্সে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পৃথিবীতে আরও এক ট্রিলিয়ন (এক হাজার কোটি) প্রজাতির প্রাণী রয়েছে যার কথা বিজ্ঞানীরা এখনো পর্যন্ত জানেনা। অর্থাৎ ৯৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ এখনো আমাদের অজানা। এই গবেষণা যদি সত্যি হয় তাহলে মোট প্রাণী প্রজাতির মাত্র ১ শতাংশ আমরা এখন পর্যন্ত আবিষ্কার করতে পেরেছি। 

কীটনাশক ছাড়াই মোসাদ্দেকের পোকা দমন যন্ত্র

Banglamail-img
এক বিঘা জমিতে এক বছরের তিনটি ফসলের পোকা দমনে একজন কৃষকের কমপক্ষে ৮ হাজার টাকা খরচ হয় সেখানে মাত্র ৩ হাজার টাকা ব্যয়ে এ যন্ত্র দিয়ে পোকা দমন সম্ভব। আবার এ যন্ত্র এক বিঘা জমিতে একটি লাগে এবং তিন বছর ব্যবহার করা যাবে।
Banglamail-img

মোহামেডানের জয়ের ধারা অব্যাহত

নাঈম ইসলাম জুনিয়র ও এনামুল হক জুনিয়রের মায়াবী স্পিনে ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) জয়ের ধারা অব্যহত রেখেছে মোহামেডান স্পোটিং ক্লাব। শুক্রবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায় তারা ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে। গাজী গ্রুপ আগে ব্যাট করতে নেমে ৩৭.১ ওভারে ১৪১ রানে অলআউট হয়। জবাবে ৩১.৫ ওভারে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে তরি ভেড়ায় মুশফিকুর রহিমের মোহামেডান।
Banglamail-img

ঢাকার দর্শকদের বসতে দেননি বিশাল-শেখর

বিশাল-শেখর মঞ্চে উঠার পর দর্শকদের একটুর জন্যও সিটে বসতে দেননি। নাচে গানে ‘নবরাত্রি’র হলরুম তখন দর্শকে টয়টম্বুর! বিশাল শেখর অগনিত দর্শক শ্রোতার সামনে গেয়ে চলেছেন তাদের জনপ্রিয় সব গান। ছেলেরা যতোটা না বিশাল-শেখরের গানের তালে নেচেছেন তারচেয়ে ঢের কয়েকগুণ বেশি নেচেছেন মেয়েরা। বিশাল-শেখরে তাদের এই পাগলামি ছিল দেখার মত...
একই বছরের ৮ নভেম্বর তারা রংপুর জেলার কোতোয়ালি থানা এলাকায় রুহুল আমিনকে হত্যার মিশন চালায়। কিন্তু এই মিশনটিতে নবগঠিত এই স্লিপার সেল ব্যর্থ হয়। তবে ব্যর্থতার দায় খুব বেশি দিন তাদের টানতে হয়নি। রুহুল আমিনের কিলিং মিশন ব্যর্থ হওয়ার মাত্র দুই দিন পরই তারা একই এলাকায় খাদেম রহমত উল্লাহকে হত্যা করে। এরপর ঠিক পরের দিনই তারা সৈয়দপুরে আরেকটি মাজারের খাদেমকে হত্যার মিশন চালায়। কিন্তু সেই মিশনে তারা সফল হতে পারেনি। ৫ দিন বিরতি দিয়ে ১৮ নভেম্বর রংপুরে ডা. পিয়েরো পারোলকি নামের এক ইতালীয়কে হত্যার মিশন চালিয়ে ব্যর্থ হয়।
আমাদের শ্রেণি কক্ষের পড়াশোনার দু’টি চিত্র ফুটে ওঠে। এক. ভুল পড়ানো হচ্ছে। দুই. পড়ানো হচ্ছে না। অর্থাৎ শিক্ষকরা ভুল পড়াচ্ছেন অথবা পড়াচ্ছেন না। ফলাফল দাঁড়াচ্ছে শিক্ষকদের অজ্ঞতা অথবা দায়িত্বহীনতার কারণে শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।
নির্বাচন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নির্বাচন কমিশন নামেমাত্র ইউপি নির্বাচনের আয়োজন করেছে। মাঠ কর্মকর্তাদের সঙ্গে সমন্বয় না করে পুরো দায়িত্ব তাদের হাতে দিয়েছে। এতে করে ইউপিতে ব্যাপক অনিয়ম কারচুপির ঘটনা ঘটছে। এ কারণে ফলাফলে এমন অস্বাভাবিক চিত্র দেখা গেছে।   এই ধাপের ধাপের চূড়ান্ত ফলাফলে দেখা যায়, ৬১৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা মোট ৩৯৫টি ইউনিয়নে জয় লাভ করেছেন। এর মধ্যে ৩৬৬টিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ও ২৯টিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হয়েছেন তারা। বিএনপি জিতেছে ৬০টি ইউপিতে। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় পেয়েছেন ১৩৯টি ইউনিয়নে। জাতীয় পার্টি ১৪টি, জাসদ ১টি ও জমিয়ত উলামায়ে ইসলাম ১টি ইউনিয়নে জয় পেয়েছেন।
দেশের বাজারে রোববার রাত ১২টার পরপরই জ্বালানি তেলের দাম প্রতিলিটারে ১০ টাকা কমানোর সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করতে জনস্বার্থে জ্বালানি তেলের দাম কমানো হয়। তবে এর প্রকৃত সুবিধা ভোক্তারা পাবে কি না তা নিয়ে নতুন করে দেখা দিয়েছে সংশয়। কারণ বাসমালিকরা উল্টো হাস্যকর প্রশ্ন রাখছেন, জ্বালানি তেলের দাম কমেছে নাকি?