Banglamail-img

ক্ষোভ প্রশমনে প্রশাসনে ফের পদোন্নতির উদ্যোগ

প্রশাসনে ক্ষোভ প্রশমনে বঞ্চিত হিসেবে বিবেচিত কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এ দফায় অন্তত চার শতাধিক কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেয়া হতে পারে। পদোন্নতি পাচ্ছেন উপসচিব, যুগ্মসচিব এবং অতিরিক্ত সচিব পর্যায়ের কর্মকর্তারা। শিগগিরই এ সিদ্ধান্ত হতে পারে। পদোন্নতি পেলেও এসব কর্মকর্তা আর্থিক দিক থেকে লাভবান হবেন না। বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা একই থেকে যাবে।  দীর্ঘ সময় ধরে প্রশাসনে হাজারেরও বেশি কর্মকর্তা পদোন্নতি থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। এর মধ্যে পদোন্নতি পাওয়ার যোগ্য আট শতাধিক কর্মকর্তাকে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। নানা কারণে এসব কর্মকর্তা পদোন্নতি পাননি।  জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক বাংলামেইলকে বলেন, ‘আপনারা পদোন্নতির এসব বিষয় জানেন কোথা থেকে। পদোন্নতির কোনো প্রক্রিয়াই এখনো শুরু হয়নি।’
Banglamail-img

পেয়াজের ‘ঝাঁজ’ কমলেও বেড়েছে রসুনের

আদা-রসুনের পাইকারি ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলাপকালে তারা জানান, বাজারে দেশি রসুনের সঙ্কট অপরদিকে চায়না থেকে রসুন বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। আর এ কারণে দেশে রসুনের দাম বাড়ছে বলে জানিয়েছেন তারা। নতুন যারা রসুন আমদানি করছে তারা বেশি দামে কিনছে বলে বেশি দামেই বিক্রি করছে। তবে দেশি রসুন উঠা শুরু করলে দাম কমবে বলে জানিয়েছেন তারা।   শ্যামবাজারের পাইকারি ব্যবসায়ী রানী বাণিজ্যালয়ের সত্ত্বাধিকারী বিপ্লব সাহা বাংলামেইলকে জানান, বতমানে রসুন চড়া দামে আমদানি করতে হচ্ছে তাই রসুনের বাজার চড়া। তবে যেসব ব্যবসায়ি আগে রিজাভ করে রেখেছিল তারা অতিরিক্ত লাভ করছে বলে জানান তিনি। তিনি আরও বলেন, বেশির ভাগ পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছে দেশি রসুন রিজার্ভ নেই, সঙ্কট অপরদিকে চায়না থেকে বেশি দামে রসুন কিনতে হচ্ছে। আর এ কারণে দেশে রসুনের দাম বেড়েছে।
Banglamail-img

‘পাকিস্তানি চর’ সন্দেহে নজরদারিতে অনেকেই

পাকিস্তানের কিছু নাগরিক ছদ্মবেশে বাংলাদেশে গুপ্তচরবৃত্তি করছে বলে ধারণা আইনশৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর। তারা বিভিন্ন পরিচয়ে ঘাপটি মেরে থাকলেও তাদের আসল লক্ষ্য এ দেশে জঙ্গিবাদ ও জাল মুদ্রা ছড়িয়ে দেয়া। গতবছর ফেব্রুয়ারি মাসে পাকিস্তান হাইকমিশন কর্মী মাজহার খান ও গত ডিসেম্বরে পাকিস্তানি কূটনীতিক ফারিনা আরশাদ জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা নিয়ে বিতর্কের মধ্যে বাংলাদেশ ছেড়েছেন। তবে মূল হোতা এখনো ঢাকায় সক্রিয় বলে ধারণা গোয়েন্দাদের। জঙ্গিবাদসহ বিভিন্ন ইস্যুতে বাংলাদেশ-পাকিস্তান সম্পর্কে ‘টানাপড়েনের’ মধ্যে এমন তথ্য-প্রমাণ পেয়েছেন তারা। 
Banglamail-img

ইউপি নির্বাচন পরিচালনার জন্য জাপার কমিটি

আসন্ন পৌরসভা ও ইউনিয়ন নির্বাচনে এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারকে আহ্বায়ক ও এ্যাড. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়াকে সদস্য সচিব করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় জাতীয় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সিনিয়র যুগ্ম সচিব ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব এ্যাড. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া বাংলামেইলকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সাত সদস্য বিশিষ্ট এ নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়েছে পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এস.এম. ফয়সল চিশতী, সদস্য সচিব করা হয়েছে পার্টির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাড. মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়াকে। কমিটির সদস্যরা হলেন, পার্টির যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, নুরুল ইসলাম নুরু,  যুব সংহতির সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসেন ও জাতীয় পার্টির দপ্তর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ।

বসন্ত বাতাসে স্বর্গরাজ্য সাজেকে...

Banglamail-img
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কল্যাণে সাজেক এখন পরিণত হয়েছে ইউরোপের কোনো এক ছোট শহরে। ইউরোপের আদলে আধুনিক আবাসন ব্যবস্থা, সড়ক নির্মাণ, সৌর বিদ্যুৎ দিয়ে স্ট্রিট ল্যাম্প (সড়ক বাতি), আদিবাসীদের নিজস্ব ঐতিহ্য তুলে ধরতে তাঁত বুনন কেন্দ্র, মাচাং ঘর তৈরি, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানসহ আমূল পরিবর্তন ঘটেছে সাজেক ইউনিয়নের। পিছিয়ে থাকা সাজেকের জনগোষ্ঠীদের শিক্ষার জন্য বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের উদ্যোগে মাধ্যমিক স্কুলও চালু করা হয়েছে সাজেকে।

বসন্ত এসে গেছে..

Banglamail-img
এতোদিন যে বসে ছিলেম পথ চেয়ে আর কাল গুনে, দেখা পেলেম ফাল্গুনে .......' তুরতুরে শীতের আড়ষ্ঠতা এড়িয়ে ধরাতে ধরা দিয়েছে ফাগুনের সব রঙ। মন কানায় কানায় পূর্ণ হয়েছে অস্থির আবেগে। আপনজনকে কাছে পাওয়ার আকুতি, সে যেন আবশ্যিক। আর কেনই বা হবে না, প্রকৃতিতে যৌবনের বান তো এভাবেই বইছে। সহজেই বোঝা যাচ্ছে ধরায় বসন্ত এসে গেছে।

স্বাগত ঋতুরাজ, স্বাগত হে চির যৌবন...

Banglamail-img
বসন্ত সারা বিশ্বেই আরাধ্য ঋতু। মনোহরি এ ঋতুর আবহ একেক জায়গায় একেক রকম। নাতিশীতোষ্ণ এ বঙ্গীয় অঞ্চলে বসন্ত সবসময়ই শীতের শেষে কুয়াশার ঘোর লাগা অন্যরকম ‘শীতল উষ্ণতা’ নিয়েই আসে। শরীরের রন্ধ্রে রন্ধ্রে তার আভাস টের পাওয়া যায়। চিত্ত চঞ্চল হয়ে ওঠে। সমস্ত চরাচরকে প্রতি মুহূর্তে নতুন করে আবিষ্কার করে চলে বিবাগী মন। 

হুমায়ূনের ঘেঁটুপুত্র আফগানিস্তানে বাচ্চাবাজি! (ভিডিও)

Banglamail-img
এই প্রথম নয়। বেশ কয়েক বছর ধরেই সেদেশে এই নাচ চলে আসছে। এর পোশাকি নাম হল ‘বাচ্চা বাজ়ি’ বা ‘প্লেয়িং উইথ দ্য বয়েজ়’। আর এর আড়ালেই শিশু-কিশোরদের উপর অমানবিক অত্যাচার করা হয়ে থাকে। যৌন দাস হিসেবে ব্যবহার করা হয় তাদের। নাচের পর বেশিরভাগ সময়ই তাদের হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। যেখানে তাদের উপর চালানো হয় যৌন অত্যাচার।      সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে যেখানে তাদের অবস্থার কথা জানিয়েছে অনেকেই।  তিক্ত অভিজ্ঞতা শোনাতে গিয়ে চোখে জল এসে গিয়েছে তাদের।  

আজি এ বসন্তে এত ফুল ফোটে …

Banglamail-img
বসন্ত মানে কুয়াশার ঘোমটা খুলে প্রকৃতিতে হাজারো ফুলের সমারোহ। ফুল মানেই রঙের মেলা। ফুল ফুটবার পুলকিত এই দিনে বন-বনান্তে কাননে কাননে পারিজাতের রঙের কোলাহলে ভরে উঠে চারদিক। যেদিকেই চোখ যায়, শুধু নয়নাভিরাম ফুল আর ফুল। বসন্তের ফুল নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন -

ফুলের বন্দরে স্বপ্নের হাতছানি

Banglamail-img
ফুলের খরচ হিসাবে সত্যেন্দ্র মণ্ডল বাংলামেইলকে বলেন, এক বিঘা জমি এক বছরের জন্য ভাড়া দিতে হয় ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা। তার উপর এক বিঘা জমিতে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকার বীজ, ৫ থেকে ৭ হাজার টাকার কীটনাশক, ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা সারসহ পানি, শ্রমিকের মজুরিসহ প্রায় আরো ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা খরচ আছে। এসব কিছু দিয়ের পর একশ ফুলের লহর বিক্রি করতে হয় ১৮০ থেকে ২০০ টাকা। এছাড়াও গ্লাডিয়াস একটি ফুলের চাষে এরচেয়ে দ্বিগুণ খরচ। তারপরও একটি ফুল বিক্রি করতে হয় ৪ থেকে ৫ টাকা। যাতে চাষাবাদের খরচের টাকা উঠে কিন্তু লাভ হয় না।
Banglamail-img

বাংলাদেশের প্রয়োজন ২১৫ রান

আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে জয়ের জন্য বাংলাদেশকে ২১৫ রানের লক্ষ্য বেধে দিয়েছে শ্রীলঙ্কা যুব দল। মেহেদি হাসান মিরাজ, সাইফুদ্দিন ও আবদুল হালিমদের বোলিং নৈপুণ্যে সাত বল বাকি থাকতেই ২১৪ রানে অলআউট হয় লঙ্কানরা। ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে শনিবার টস হেরে শুরুতে ফিল্ডিং করতে হয় বাংলোদেশকে। ওপেনিং জুটিতে শ্রীলঙ্কা কিছুটা শক্তিশালী অবস্থান নিলেও পরে তা ভেঙে যায়। শ্রীলঙ্কার দুই ওপেনার কামিন্দু মেন্ডিস ও সালিন্দু পেরেইরা দুর্দান্ত সূচনা করেন। ৬০ রানের ওপেনিং জুটি গড়ে বড় স্কোর গড়ার আভাসই দিচ্ছিলেন তারা। তবে চোখ রাঙাতে থাকা দুই লঙ্কান ওপেনারকে এরপরই ফিরিয়ে দিতে সক্ষম হন বাংলাদেশ অধিনায়ক মেহেদি হাসান মিরাজ। মেন্ডিসকে (২৬) এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন তিনি। আর পেরেইরা (৩৪) উইকেটের পেছনে ধরা পড়েন সেই মিরাজের বলেই।

খাজা-ভোজেসে ওয়েলিংটনে অস্ট্রেলিয়ার নিয়ন্ত্রণ

ওয়েলিংটন টেস্টে দিনের নিয়ন্ত্রণটা থাকল অস্ট্রেলিয়ার হাতেই। এর চেয়েও বিশেষ করে বলতে গেলে ওসমান খাজা ও এ্যাডাম ভজেসই প্রায় শনিবার দিনটা নিয়ন্ত্রণে রাখেন। মাঝপথে খাজা আউট হলেও ভজেস পুরো দিন ব্যাট করেই তবে মাঠ ছেড়েছেন। তবে উভয়ে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। ভজেস তো হাঁটছেন ডাবল সেঞ্চুরির পথেও। সারা দিনে নিউজিল্যান্ডের অর্জন তিন উইকেট। আর আগের দিনের তিন উইকেটে ১৪৭ রানে থাকা অস্ট্রেলিয়া শনিবার দিন শেষে প্রথম ইনিংসে করেছে ছয় উইকেটে ৪৬৩ রান। প্রথম ইনিংসে নিউজিল্যান্ড মাত্র ১৮৩ রানে অলআউট হওয়ায় দ্বিতীয় দিনশেষে অসিদের লিড দাঁড়ায় ২৮০ রানের।
Banglamail-img

বকুলতলায় বসন্ত নামলো উৎসবে

রুক্ষ প্রকৃতিতে নব প্রাণের সঞ্চার করতে বছর ঘুরে আবারো এসেছে বসন্ত। তাই প্রতি বছরের মত এবারও ‘এসো মিলি প্রাণের উৎসবে’ শীর্ষক স্লোগান নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদে ঋতুরাজ বসন্তকে বরণের আয়োজন করেছিলো ‘জাতীয় বসন্ত বরণ উদযাপন পরিষদ’। 
প্রশাসনে ক্ষোভ প্রশমনে বঞ্চিত হিসেবে বিবেচিত কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এ দফায় অন্তত চার শতাধিক কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেয়া হতে পারে। পদোন্নতি পাচ্ছেন উপসচিব, যুগ্মসচিব এবং অতিরিক্ত সচিব পর্যায়ের কর্মকর্তারা। শিগগিরই এ সিদ্ধান্ত হতে পারে। পদোন্নতি পেলেও এসব কর্মকর্তা আর্থিক দিক থেকে লাভবান হবেন না। বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা একই থেকে যাবে।  দীর্ঘ সময় ধরে প্রশাসনে হাজারেরও বেশি কর্মকর্তা পদোন্নতি থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। এর মধ্যে পদোন্নতি পাওয়ার যোগ্য আট শতাধিক কর্মকর্তাকে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। নানা কারণে এসব কর্মকর্তা পদোন্নতি পাননি।  জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক বাংলামেইলকে বলেন, ‘আপনারা পদোন্নতির এসব বিষয় জানেন কোথা থেকে। পদোন্নতির কোনো প্রক্রিয়াই এখনো শুরু হয়নি।’
পাকিস্তানের কিছু নাগরিক ছদ্মবেশে বাংলাদেশে গুপ্তচরবৃত্তি করছে বলে ধারণা আইনশৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর। তারা বিভিন্ন পরিচয়ে ঘাপটি মেরে থাকলেও তাদের আসল লক্ষ্য এ দেশে জঙ্গিবাদ ও জাল মুদ্রা ছড়িয়ে দেয়া। গতবছর ফেব্রুয়ারি মাসে পাকিস্তান হাইকমিশন কর্মী মাজহার খান ও গত ডিসেম্বরে পাকিস্তানি কূটনীতিক ফারিনা আরশাদ জঙ্গি সংশ্লিষ্টতা নিয়ে বিতর্কের মধ্যে বাংলাদেশ ছেড়েছেন। তবে মূল হোতা এখনো ঢাকায় সক্রিয় বলে ধারণা গোয়েন্দাদের। জঙ্গিবাদসহ বিভিন্ন ইস্যুতে বাংলাদেশ-পাকিস্তান সম্পর্কে ‘টানাপড়েনের’ মধ্যে এমন তথ্য-প্রমাণ পেয়েছেন তারা। 
চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ থানার নারায়ণপুর ইউনিয়নের সাইফুল ইসলাম। অতীতে ছাত্রদলের কোথাও কোনো কমিটির নেতা ছিলেন না। বেশ কিছুদিন আগে একবার ইউনিয়ন কমিটিতে ঢুকতে বিএনপির এক নেতার কাছে তদবির করেন। সেখানেও নেতা হতে পারেননি। পরে ঢাকায় এসে সেন্ট্রাল ল’ কলেজে পড়াশোনা করেন। তিনি এখন সরাসরি আইন পেশায় যুক্ত। সৌভাগ্যের বিষয়, এবার তিনি ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য। ওই থানায় ইমরান নাজিরেরও একই সৌভাগ্য। অতীতে কোথাও কমিটিতে না থাকলেও তদবির করে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হয়েছেন। পাশের কচুয়া থানার আরিফুর রহমান, নাসির উদ্দিন ও অন্য একজন পেয়েছেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদকের পদ।
রাজধানীর মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার (গুলিস্তান-যাত্রাবাড়ী ফ্লাইওভার) নির্মাণে ২ হাজার ৩৩৫ কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এ ফ্লাইওভার নির্মাণ কিংবা বিনিয়োগের সঙ্গে ঢাকা সিটি করপোরেশনের (ডিসিসি) কোনো সংশ্লিষ্টতা না থাকা সত্বেও পাঁচ অর্থবছরে এই বিপুল পরিমাণ টাকা ব্যায় দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগে বলা আছে। ডিসিসি’র এই ‘ভৌতিক’ ব্যয় সংক্রান্ত অভিযোগটি যাচাই-বাছাই শেষে অনুসন্ধানে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ জন্য দুদকের উপপরিচালক মোহাম্মাদ আব্দুস সোবহানকে অনুসন্ধানের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। দুদক সূত্র বাংলামেইলকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।